শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৩:০৪ অপরাহ্ন

মিরসরাইয়ে আযান প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

দিগন্তের বার্তা ২৪ ডেস্ক : / ১১০ বার পঠিত
আপডেট : মঙ্গলবার, ২৭ জুন, ২০২৩, ৭:৪৫ অপরাহ্ণ

কামরুল হাসানঃ-মিরসরাই উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের আয়োজনে আযান প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ জুন) সকালে উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংষ্কৃতিক অডিটোরিয়ামে আয়োজিত প্রতিযোগিতায় উপজেলার বিভিন্ন স্কুল-মাদরাসা ও কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।
পুরষ্কার বিতরণ ও আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও মডেল মসজিদ পরিচালনা কমিটির মাহফুজা জেরিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মডেল মসজিদ পরিচালনা কমিটির উপদেষ্টা জসিম উদ্দিন।

মিরসরাই প্রেসক্লাবের সভাপতি ও মডেল মসজিদ পরিচালনা কমিটির সদস্য মো. নুরুল আলমের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এনায়েত হোসেন নয়ন, জোরারগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ রেজাউল করিম মাষ্টার, উপজেলা জনস্বাস্থ্য সহকারি প্রকৌশলী কেএম সাঈদ মাহমুদ।

এইসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন ইমন, বারইয়ারহাট কমর্ফোট হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন, দুর্গাপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সলিম উদ্দিন, মিরসরাই প্রেসক্লাবের সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক এম মাঈন উদ্দিন, উপজেলা মডেল মসজিদের খতিব মাওলানা আরিফুল ইসলাম, মিরসরাই কলেজ জামে মসজিদের খতিব মাওলানা নিজাম উদ্দিন ও হিঙ্গুলী কদমতলা ইসলামীয়া দাখিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা বোরহান উদ্দিন প্রমুখ।আলোচনা সভাশেষে দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন উপজেলা মডেল মসজিদের খতিব মাওলানা আরিফুল ইসলাম।

সবশেষে ক, খ, গ ও ঘ বিভাগে প্রতিযোগিতায় ১২ জন বিজয়ীদের মাঝে ক্রেস্ট, সনদপত্র, সেবা আধুনিক হাসপাতালের সৌজন্যে জায়নামাজ, টুপি, আতর, তজবী, মেসওয়াক গেøাবাল প্রেমিয়াম এক্সেসরিসের সৌজন্যে মগ ও ডায়েরী তুলে দেন উপস্থিত অতিথিবৃন্দরা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন বলেন, প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত আযানের মাধ্যমে নামাজের প্রতি আহবান করা হয়। শতব্যস্ততার মাঝেও আমরা আযান শুনার সাথে সাথে মসজিদের দিকে ছুটে যাই। আযানের এতো সম্মান ভিন্ন ধর্মালম্বীরাও মুসলমানদের আযানের সময় তাদের ধর্মীয় অনুষ্ঠানের সময় মাইক বন্ধ রাখেন। সময়ের ব্যবধানে প্রতিমূহুর্তে সারাপৃথিবীতে আযান হচ্ছে। পৃথিবীর কেন্দ্রবিন্দু পবিত্র কাবা শরীফে এক মূহুর্তের জন্যও তাওয়াফ যেমন বন্ধ থাকেনা ঠিক তেমনি সারাপৃথিবীতে এক মুহুর্তের জন্য আযান বন্ধ থাকেনা। এই ধরণের একটি গুরুত্বপূর্ণ আয়োজনের জন্য আয়োজক কমিটি এবং যারা সহযোগিতা করেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।

সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহফুজা জেরিন বলেন, একজন মুসলিম হিসেবে জন্মগ্রহনের সাথে সাথে আযানের মাধ্যমে তার ধর্মীয় পরিচয় ফুটে উঠে। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন মানুষকে তার ইবাদতের জন্য সৃষ্টি করেছেন।

প্রতিদিন ৫ওয়াক্ত নামাজের জন্য মুয়াজ্জিন আযানের মাধ্যমে নামাজের জন্য আহবান করে থাকেন। আযানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অপরিসীম। আমরা উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামীক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের মাধ্যমে শুদ্ধ উচ্চারণে আযান দেওয়ার জন্য অন্যদের অনুপ্রাণিত করতে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছি।

Facebook Comments Box


এ জাতীয় আরও খবর
এক ক্লিকে বিভাগের খবর