1. admin@digonterbarta24.com : admin :
বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২৩ অপরাহ্ন

আমরা সবাই একটি পরিবারের মতো হয়েই কাজ করছিঃ অরুণা বিশ্বাস

দিগন্তের বার্তা ২৪ ডেস্ক
  • সময় : রবিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ২৩ বার পঠিত

বিনোদন ডেস্কঃ অসম্ভব হলেও সম্ভবের পথে এগিয়ে চলেছেন ” অসম্ভ ” সিনেমার শুটিং এর কাজ। আর এ ছবির কাজ শুরু থেকে শেষ করার আগ পর্যন্ত জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন বাংলাদেশের যাত্রা সম্রাট অমলেন্দু বিশ্বাস ও যাত্রা সম্রাজ্ঞী জোৎস্না বিশ্বাসের কন্যা জননন্দিত অভিনেত্রী অরুনা বিশ্বাস। তিনি দীর্ঘ দিনের অভিনয়ের অভিজ্ঞতার অর্জনের মধ্যে থেকে প্রথমবারের মতো ‘অসম্ভব’ নামের সিনেমাটি নির্মাণ করছেন। সরকারি অনুদানে ‘যাত্রা ভিশন’র প্রযোজনায় মানিকগঞ্জের জাবরা গ্রামে এরই মধ্যে ‘অসম্ভব’ সিনেমার ষাট ভাগের কাজ শেষ হয়েছে। সিনেমার মূল গল্প অরুনা বিশ্বাসের ভাই প্রসূন বিশ্বাস মিঠুর এবং সংলাপ রচনা করেছেন প্রসূন বিশ্বাস মিঠু ও মুজতবা সউদ।

“অসম্ভব” সিনেমায় আফজাল চৌধুরী চরিত্রে অভিনয় করছেন আবুল হায়াত, কাজল চরিত্রে অরুনা বিশ্বাস, তার বিপরীতে সুমন চরিত্রে শতাব্দী ওয়াদুদ, রেখা চরিত্রে সোহানা সাবা, তার বিপরীতে সাগর চরিত্রে ‘গাজী আব্দুন নূর, শান্ত চরিত্রে শাহেদ, তার বিপরীতে পুষ্পিতা চরিত্রে স্বাগতা এবং যাত্রা সম্রাজ্ঞী জ্যোৎস্না বিশ্বাস চরিত্রে জ্যোৎস্না বিশ্বাস নিজেই অভিনয় করছেন। সিনেমাটির প্রযোজনা উপদেষ্টা প্রসূন বিশ্বাস মিঠু। সিনেমাটি নির্মাণ প্রসঙ্গে অরুনা বিশ্বাস বলেন, ‘যেহেতু আমি দীর্ঘদিন ধরেই চলচ্চিত্রে এবং নাটকে অভিনয় করছি, তাই সবাই অসম্ভব সিনেমাটিকে নিজেদের সিনেমা হিসেবে মনে করেই শতভাগ মতনোযোগ দিয়ে কাজ করছেন। আমরা সবাই একটি পরিবারের মতো হয়েই কাজ করছি। শ্রদ্ধেয় আবুল হায়াত আঙ্কেল তো বললেনই যে তিনি দীর্ঘদিন পর মনের মতো একটি সিনেমায় কাজ করছেন। আজ বাবা বেঁচে থাকলে হয়তো সবচেয়ে বেশি খুশি হতেন। বাবাকে খুব অনুভব করছি। মা সার্বক্ষণিক আছেন আমার পাশে আমাকে শক্তি আর সাহস যোগাতে। আমি প্রত্যেক শিল্পীর কাছে, পুরো ইউনিটের কাছে আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ।’

আবুল হায়াত বলেন, ‘অরুনা সিনেমাটি খুব যত্ন নিয়ে কাজটি করছে। সবাই একটি পরিবারের মতো হয়েও কাজ করছে, যে কারণে আমি ভীষণ আনন্দ পাচ্ছি।’ শাহেদ বলেন, ‘অরুনা দিদি এই দেশের এতিহ্যবাহী একটি পরিবারের সন্তান। তার নির্মাণে, তার ব্যক্তিত্বে সেই আদর্শটা খুঁজে পেয়েছি।

সোহানা সাবা বলেন, ‘দিদির সিনেমায় কাজ করতে এসে যাত্রা সম্পর্কে আমার বিষদ জানা হলো এবং সবচেয়ে বড় কথা হলো আমার বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। এই সিনেমায় মুক্তিযুদ্ধকে তুলে আনা হয়েছে, তাই সিনেমাটির প্রতি আমার অন্যরকম আবেগ রয়েছে।

নায়ক গাজী আব্দুন নূর বলেন,‘ একটা সময় বিনোদনের একমাত্র মাধ্যম ছিলো যাত্রা পালা। যাত্রাকে রিপ্রেজেন্ট করা হয়েছে এই সিনেমায়, যে কারণে প্রথম আগ্রহ ছিলো এতে কাজ করার। এই সিনেমায় অনেক গুণী অভিনয়শিল্পী অভিনয় করছেন, তাদের সঙ্গে কাজ করেও আমার নিজেকে সমৃদ্ধ করছি। সর্বোপরি অরুনা দিদির মতো একজন গুণী শিল্পীর পরিচালনায় কাজ করবো-এটা ছিলো আমার প্রবল আগ্রহ।

তার নির্দেশনায় বিশেষত যাত্রার অংশে কাজ করে ভীষণ মুগ্ধ।’ স্বাগতা বলেন, ‘অরুনা দিদি একজন মেধাবী শিল্পী, পরিচালক। সিনেমা নির্মাণের পুরো পরিবেশটা এতটাই মুগ্ধতার যে কাজ করে ভীষণ ভালোলাগছে।’ আগামী ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত জাবরায় শুটিং চলবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © দিগন্তের বার্তা ২৪
Theme Customized BY Theme Park BD