1. admin@digonterbarta24.com : admin :
শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সাবেক চেয়ারম্যান কামালউদ্দীনের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ অপর্যাপ্ত চিকিৎসক , উদাসীনতা এবং নানা সমস্যায় জর্জরিত হাতিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স বাজার ব্যবসায়ীদের সাথে মতবিনিময় করলেন সেনবাগ পৌর মেয়র জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সব পরীক্ষা স্থগিত দেওয়ানগঞ্জে পৌর সভার উদ্যোগে অসহায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ রাত জেগে বজ্য অপসারণ করালেন সেনবাগ পৌর মেয়র ভিপি দুলাল স্বপ্নের আলো ফাউন্ডেশন (এসএএফ)’র শীতবস্ত্র বিতরণ ঝালকাঠিতে মাদক মামলায় ১জনের ৫ বছরের সশ্রম কারাদন্ড নিজাম উদ্দিন পুনরায় সিপিআই নির্বাচিত এসএসসি ২০০২ এবং এইচএসসি ২০০৪ বাংলাদেশ গ্রুপের শীতবস্ত্র বিতরণ-ওয়ার্ম লাভ

গোলসাছড়ি জনবল বৌদ্ধ বিহারে ১ম বারের মত দানোত্তম কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠিত

দিগন্তের বার্তা ২৪ ডেস্ক
  • সময় : শনিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২১
  • ৪২ বার পঠিত

তুফান চাকমা, নানিয়ারচর প্রতিনিধিঃ- নানিয়ারচর উপজেলাধীন গোলসাছড়ি জনবল বৌদ্ধ বিহারে ১ম বারের মত শুভ দানোত্তম কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৩ অক্টোবর (শনিবার) সকালে রুবেল চাকমার কণ্ঠে উদ্ভোদনী সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে ১ম পর্বের অনুষ্ঠান শুরু হয়৷ অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা দ্বায়িত্বে ছিলেন মুকুল চাকমা ও বনী চাকমা।

সকালে পূজনীয় ভিক্ষু সঙ্ঘের উপস্থিতিতে পঞ্চশীল প্রার্থণা করেন গোলসাছড়ি জনবল বৌদ্ধ বিহারের সাধারণ সম্পাদক জ্যোতিময় দেওয়ান।

এই সময় দানের মধ্যে বুদ্ধ মুক্তি দান,সঙ্ঘ দান,অষ্টপরিষ্কার দান,বুদ্ধ পূজা,সীবলী পূজা সহ নানাবিধ দানের কার্য সম্পাদন করা হয়।

প্রধান ধর্মদেশক হিসেবে উপবিষ্ট ছিলেন রত্নাংকুর বন বিহারের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ বিশুদ্ধানন্দ মহাস্থবির সহ নানা বিহার থেকে আমন্ত্রিত ভিক্ষু সঙ্ঘ উপস্থিত ছিলেন।

ভগবান বুদ্ধের অমৃতবাণী স্বধর্ম দেশনা প্রদান করেন, শ্রীমৎ বিশুদ্ধানন্দ মহাস্থবির। ভান্তের দেশনার মধ্যে দিয়ে সকাল পর্বের অনুষ্ঠান সমাপ্তি করা হয়।

দুপুর ২টায় রুবেল চাকমার কণ্ঠে উদ্ভোদনী সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে ২য় পর্বের অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। এই সময় ত্রিশরণ সহ পঞ্চশীল প্রার্থণা করেন দেব জ্যোতি চাকমা এবং প্রদান করেন বেনুবন অরণ্য কুটিরের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ পন্থক মহাস্থবির।

বিকালে দানের পর্বের মধ্যে ছিল কঠিন চীবর দান,অষ্টপরিষ্কার দান,কল্পতরু দান,আকাশ বাতি দান সহ হাজার বাতি দান। পরে ভিক্ষু সঙ্ঘের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি পাঠ করেন প্রত্যাশা চাকমা।

মহতী পূণ্যানুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের সদস্য ও নানিয়ারচর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিপন চাকমা, নানিয়ারচর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল ওহাব হাওলাদার,নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান রন বিকাশ চাকমা, নানিয়ারচর উপজেলা হ্যাডম্যান এস্যোসিয়েশনের সভাপতি ও নানিয়ারচর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সুজিত তালুকদার,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রনেতা অ্যাডঃ দর্শন চাকমা ঝন্টু,নানিয়ারচর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি প্রিয়তোষ দত্ত সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, গোলসাছড়ি জনবল বৌদ্ধ বিহারের সভাপতি বিপুল বিকাশ চাকমা,নানিয়ারচর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল ওহাব হাওলাদার, জেলা পরিষদের সদস্য ও নানিয়ারচর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিপন চাকমা।

আব্দুল ওহাব হাওলাদার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান যুগের স্মার্ট ফোন যুব সমাজের জন্য ক্ষতিকারক হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে অপ্রাপ্তবয়স্করাও স্মার্ট ফোন ব্যবহার করছে। রাতের পর রাত জেগে কথা বলতে বলতে তাদের স্বাস্থ্য নষ্ট হচ্ছে। কারণ ফোনে অধিক কথা বলা মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য খুব ক্ষতিকর। বিশেষ করে ব্রেনের ও হার্ট এর অনেক ক্ষতি করে এটি। তিনি এলাকার অভিভাবকদের প্রতি অনুরোধ জানান অপ্রয়োজনে যেন নিজ সন্তানদেরকে স্মার্ট ফোন ব্যবহার করতে না দেওয়া হয়।

ইলিপন চাকমা বক্তব্যে বলেন, আমাদের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব হলো এই কঠিন চীবর দান৷ দানের মধ্যে শ্রেষ্ঠতম দান কঠিন চীবর দান। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যেক ধর্মের প্রতি আন্তরিক। এই বারের কঠিন চীবর দানে তিনি নিজস্ব ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল থেকে বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের মাধ্যমে নানিয়ারচরে ২৩টি বৌদ্ধ বিহারে আর্থিক অনুদানের চেক প্রদান করেন। একি সাথে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে নানিয়ারচরে ৩৩টি প্রতিষ্ঠানে আর্থিক সাহায্য প্রদান করা হয়েছে। এই সময় ইলিপন চাকমা গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং জননেতা দীপংকর তালুকদার এমপি সহ রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অংসুইপ্রু চৌধুরীর সহ সকল সদস্য ও সকল কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। সেই সাথে অর্জিত পূণ্যরাশী সকলেই যেন ভাগ পায় এবং সকলের সুস্বাস্থ্যের জন্য সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করেন।

ভগবান বুদ্ধের অমৃতবাণী স্বধর্ম দেশনা প্রদান করেন সঙ্ঘ মিত্র ভিক্ষু, গোলসাছড়ি জনবল বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ আধিরত্ন স্থবির, বেনুবন অরণ্য কুটিরের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ পন্থক মহাস্থবির।

শ্রীমৎ পন্থক মহাস্থবির ভিক্ষু দেশনায় বলেন, ধর্ম বুঝতে গেলে অবশ্যই জিহ্বা মত গুণ থাকতে হবে৷ জিহ্বা যেমন তরকারির স্বাধ বুঝতে পারে ঠিক তেমনি জ্ঞানীরাই ধর্মকে বুঝতে পারে। অজ্ঞানীরা কখনো ধর্মকে উপলব্ধি করতে পারবে না। জ্ঞান থাকলে সুখ শান্তিতে থাকতে পারবে।ধার্মীকদের সবাই শ্রদ্ধা এবং ভালোবাসে।

তিনি আরও বলেন, অন্য সম্পত্তিকে যখন নিজের করে পেতে মন চাই তখন নিজের মন চিত্তে একটা লোভ জন্মায়। আর সেই লোভ জন্মালে তখন পাপ শুরু হয়। লোভ, হিংসা,মিথ্যাদৃষ্টি এগুলো পাপ।এই পাপ গুলো থেকে সবসময়ই দূরে থাকতে বলেন। যেই ব্যক্তি মাতা পিতাকে শ্রদ্ধাভরে ভরণপোষণ করে সেই ব্যক্তিই পূণ্য ভাগী হয়।

গোলসাছড়ি এলাকাবাসী আয়োজনে এই মহতী পূণ্যানুষ্ঠানে দূর দূরান্ত থেকে অনেক পূর্ণাথীরা অংশগ্রহণ করেন। সন্ধ্যায় আকাশ প্রদীপ প্রজ্জলন এবং ফানুস বাতি উত্তোলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © দিগন্তের বার্তা ২৪
Theme Customized BY Theme Park BD