1. admin@digonterbarta24.com : admin :
বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ১১:০০ অপরাহ্ন

রত্নাংকুর বন বিহারে শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা উদযাপন

দিগন্তের বার্তা ২৪ ডেস্ক
  • সময় : মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২১
  • ৩৭ বার পঠিত

তুফান চাকমা, নানিয়ারচর প্রতিনিধিঃ- শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা ২০২১ উপলক্ষ্যে রত্নাংকুর বনবিহারে নানাবিধ দানানুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।

১৯ অক্টোবর (মঙ্গলবার) উষাকিরণ চাকমার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠান মঞ্চে প্রধান ভিক্ষু হিসেবে উপবিষ্ট ছিলেন রত্নাংকুর বন বিহারের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ বিশুদ্ধানন্দ মহাস্থবির ও তার শিষ্যমন্ডলী।

শিষ্টা চাকমার কণ্ঠে উদ্ভোদনী সঙ্গীত পরিবেশনার মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। অনুষ্ঠানে পঞ্চশীল প্রার্থণা করেন শুভেচ্ছা চাকমা এবং,পঞ্চশীল প্রদান করেন শ্রীমৎ বিশুদ্ধানন্দ মহাস্থবির৷

ভিক্ষু সঙ্ঘের উপস্থিতিতে বিহারে উপাসনালয়ে ত্রিশরণসহ পঞ্চশীল গ্রহণ, বুদ্ধমূর্তি দান, সংঘ দান, অষ্ট পরিষ্কার দান,হাজার বাতি দান সহ নানাবিধ দানানুষ্ঠান সম্পাদন করা হয়।

জানা যায়, শুভ আষাঢ়ি পূর্ণিমা তিথিতে বৌদ্ধ ভিক্ষুগণ ত্রৈমাসিক বর্ষাবাসব্রত অধিষ্ঠান করেন। ভিক্ষুগণ দুঃখ মুক্তি জ্ঞান লাভের তরে বর্ষার তিনমাস কঠোর আত্মসংযম সাধনা অনুশীলন করেন। একবিহারে একস্থানে অবস্থান করে আত্মশুদ্ধি আত্মমুক্তির জন্য আত্মসংযম, শাস্ত্র অধ্যয়ণ ও ধ্যান সাধনা শিক্ষা করেন। আশ্বিনী পূর্ণিমায় বর্ষাবাসব্রত সমাপ্ত করেন। একে বলা হয় “প্রবারণা পূর্ণিমা “।

অনুষ্ঠানে প্রধান উপাসক ও সাংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার এমপি প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যান ট্রাস্ট রাঙ্গামাটি জেলা ট্রাষ্টি জয় সেন তঞ্চঙ্গ্যা, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও নানিয়ারচর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিপন চাকমা, বিহার পরিচালনা কমিটির সভাপতি কমল কান্তি দেওয়ান,সাধারণ সম্পাদক প্রভাত কুমার চাকমা সহ হাজারো পূর্ণ্যার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, রত্নাংকুর বন বিহার পরিচালনা কমিটির সভাপতি কমল কান্তি দেওয়ান, জেলা পরিষদের সদস্য ইলিপন চাকমা, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যান ট্রাস্ট রাঙ্গামাটি জেলা ট্রাষ্টি জয় সেন তঞ্চঙ্গ্যা।

অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে বিশুদ্ধানন্দ ভান্তে বলেন, রত্নাংকুর বিহারে নির্মাণাধীন বিশ্ব শান্তির ২৮বৌদ্ধের প্যাগোডা নির্মাণ প্রকল্পের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করতে এবং বিহার সংলগ্ন মাঠে পরিকল্পনাধীন ২০৭ফুট উচ্চতার বৌদ্ধমূর্তি স্থাপন প্রকল্প বাস্তবায়নে পূর্ণ্যার্থীদের প্রতি আহবান জানান।

এসময় বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল এবং রাঙ্গামাটির পার্বত্য জেলা পরিষদ হতে বিভিন্ন বিহারে কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠানে আর্থিক অনুদান বিতরণ করা হয়। এছাড়াও নন এমপিও শিক্ষক/কর্মচারীদের মাঝে কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাব রোধে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠান শেষে জয়সেন তঞ্চঙ্গ্যা ও ইলিপন চাকমা, ৩২টি বৌদ্ধ বিহার, ৪টি শশ্মান , ১৯টি বিদ্যালয়ের ১৪০জন শিক্ষক, ৪টি মসজিদ ও ৫জন রোগীর চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © দিগন্তের বার্তা ২৪
Theme Customized BY Theme Park BD