1. admin@digonterbarta24.com : admin :
সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
করোনা ও ওমিক্রন থেকে রক্ষা পেতে সবাইকে ভ্যাকসিনের আওতায় আসতে হবেঃ সিভিল সার্জন বান্দরবানে পৃথক ২টি মাদক মামলার জব্দকৃত আলামত ধ্বংস উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল প্রোগ্রামের শিক্ষির্থীদের করোনা প্রদান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেলে আগুন, নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস বাগেরহাট প্রেসক্লাবের উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ মীরসরাইয়ে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা, গ্রেপ্তার ২ হাতিয়ায় ২ ইউপিতে চেয়ারম্যান সহ সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত  নড়াইলে অস্ত্র মামলায় ১জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড বাগেরহাটে মোসাফির ব্লাড ডোনারস ক্লাবের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত কোভিট-১৯ এর জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে বান্দরবানে মোবাইলকোর্ট পরিচালনা

একজন ব্যক্তির একাধিক জন্ম সনদ থাকতে পারবেনাঃ বিভাগীয় কমিশনার

দিগন্তের বার্তা ২৪ ডেস্ক
  • সময় : বুধবার, ৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫৬ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মোঃ কামরুল হাসান এনডিসি বলেছেন, মানুষের জন্ম একবার, মৃত্যুও একবার। তাই জন্ম-মৃত্যু সনদ থাকবে একটি করে। দেশের সকল নাগরিক যদি জন্ম ও মৃত্যু সনদের আওতায় আসে তাহলে এ দেশের জনসংখ্যার পরিসংখ্যান হিসাব করতে সহজ হবে এবং ভোটার তালিকা প্রস্তুতের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা নিশ্চিত হবে।

একজন ব্যক্তির একাধিক জন্ম সনদ থাকতে পারবেনা। রোহিঙ্গারা যাতে জন্ম নিবন্ধনের আওতায় আসতে না পারে সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সকলকে সতর্ক থাকতে হবে। বুধবার ( ৬ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১১টায় জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে আয়োজিত জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে “ সবার জন্য প্রয়োজন, জন্ম ও মৃত্যুর পরপরই নিবন্ধন”। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও ইউনিসেফ’র সহযোগিতায় দিবসটি পালন করা হয়।

তিনি বলেন, আগামী ২০৩০ সালে এসডিজি পূরণের জন্য জন্ম নিবন্ধনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ ও উদ্যেগ গ্রহণ করতে হবে। এই বছর রাজশাহী বিভাগ জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রমে শ্রেষ্ঠ বিভাগ নির্বাচিত হয়েছে। আগামীবার এই অর্জন যেন চট্টগ্রাম বিভাগের হয় অর্থ্যাৎ জেলা পর্যায়ে যেন চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচিত হয় এ জন্য সবাইকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রমের লক্ষ্য অর্জনে এ বছরে নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ উপজেলা আনোয়ারা।

এ উপজেলার শ্রেষ্ঠ বারশত ইউনিয়নর কার্যক্রম সারাদেশে মডেল। এছাড়াও সংশ্লিষ্ঠ উপজেলা, ইউনিয়ন, পৌরসভা, সিটি কর্পোরেশন ওয়ার্ডে দায়িত্বরত স্বাস্থ্য সহকারী, পরিবার পরিকল্পনা সহকারীদের নিকট থেকে সহযোগিতা নেয়া যেতে পারে। বিভাগীয় কমিশনার আরও বলেন, টিকা প্রদান,স্কুলে ভর্তি, পাসপোর্ট ইস্যু, জাতীয় পরিচয়পত্র গ্রহ,
আইনী সেবা প্রাপ্তি ইত্যাদিসহ ১৮টি গুরুত্বপূর্ণ কাজে জন্ম সনদ আবশ্যক। সরকার সকলের জন্য জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করার বিষয়টি গণপ্রচার করতে সংশ্লিষ্ট সকলের সার্বিক সহযোগিতা প্রয়োজন।

চট্টগ্রাম জেলার নবাগত সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রমে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীদের সহায়তা প্রদানসহ সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের প্রতিশ্রæতি ব্যক্ত করেন। করোনা মোকাবিলায় সকলকে মাস্ক পরিধানসহ শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দেন তিনি।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবসের আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা লুৎফুন নাহার।

বক্তব্য রাখেন পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ডা. উখ্য উইন, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের উপ-পরিচালক (স্থানীয় সরকার) মোঃ বদিউল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আ.স.ম জামশেদ খোন্দকার ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মু. মাহমুদ উল্লাহ মারুফ। চট্টগ্রাম কালেক্টরেটের অফিসারবৃন্দ, ইউনিসেফ’র প্রতিনিধি, চসিক ওয়ার্ড কাউন্সিলরগণসহ বিভিন্ন এনজিও সংস্থার প্রতিনিধিগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © দিগন্তের বার্তা ২৪
Theme Customized BY Theme Park BD