1. admin@digonterbarta24.com : admin :
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
পূজা মন্ডবে পরিদর্শনে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার মিজানুর রহমান জনি দেশব্যাপি সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে কড়া হুশিয়ারি জানিয়ে পাহাড়তলী থানা ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল গুইমারায় চার দিন ধরে নিখোঁজ ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী শানু মিয়া বিশ্ব খাদ্য দিবস ২০২১ উপলক্ষে বাঘাইছড়িতে র‍্যালী ও আলোচনা সভা উদযাপন চট্টগ্রামে হরতাল প্রত্যাহার নিউ ইয়র্কে এইচআরপিবি’র মতবিনিময় সভা, প্রবাসীদের সম্পত্তি রক্ষায় ট্রাইব্যুনাল গঠনের দাবি মানিকছড়িতে যুবলীগের কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত চট্টগ্রামে মণ্ডপে হামলা, হরতালের ডাক আড়িয়াব শ্বারদীয় দুর্গা পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করেন মেয়র হাছিনা গাজী বাংলাদেশ পুলিশ ক্রিকেট ক্লাবের নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত

তাড়াশে স্যানিটারি ইনন্সপেক্টার ঘুষ চাওয়ার অভিযোগে জনতার হাতে গন ধোলাই

দিগন্তের বার্তা ২৪ ডেস্ক
  • সময় : বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১২৭ বার পঠিত

তৌফিকুল ইসলাম,জেলা প্রতিনিধি সিরাজগঞ্জঃ ঘুষ চাওয়ার অভিযোগে সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর শহিদুল ইসলাম রন্টু ও হাসপাতালের নৈশপ্রহরী গোরাচাঁদকে স্থানীয় এলাকাবাসী গণ ধোলাই দিয়ে আটকে রাখার ঘটনা ঘটেছে।

পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।
মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৫টার দিকে উপজেলার ধামাইচ গ্রামীণ হাটে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় একজনের পোশাক ছেঁড়া একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।
গণ ধোলাইয়ের শিকার হলো, তাড়াশ উপজেলার স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর শহিদুল ইসলাম রন্টু সদর উপজেলার ছোনগাছা ইউনিয়নের ভাটপিয়াড়ি গ্রামের মৃত আব্দুস সোবহানের ছেলে ও উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা হাসপাতালের নৈশপ্রহরী গোরাচাঁদ।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তাড়াশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফজলে আশিক বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ধামাইচ হাট থেকে এস. এম শহিদুল ইসলাম ও গোরাচাঁদকে উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো জানান, তাড়াশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মরত স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর এস এম শহিদুল ইসলাম রন্টু ও হাসপাতালের নৈশপ্রহরী গোরাচাঁদ ধামাইচ হাটে গিয়ে ভেজাল পণ্যের অভিযোগ তুলে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের ঘুষ দাবি করেন। ব্যবসায়ীরা তখন ঘুষ দিতে অস্বীকার করলে তাদের জেল-জরিমানার ভয় দেখিয়ে খারাপ ব্যবহার করেন। এ সময় উত্তেজিত এলাকাবাসী তাদের ধোলাই দিয়ে আটকে রাখে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে।

পরে মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাত ৯টার দিকে মুচলেকা দিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তাদের ছাড়িয়ে নেন।
ধামাইচ বাজারের হোটেল ব্যবসায়ী রাশিদুল ইসলাম বলেন, স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর প্রায়ই হাটবাজারে গিয়ে ব্যবসায়ীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা ঘুষ দাবি করেন। মঙ্গলবার বিকেলে ধামাইচ হাটে এসে অনেক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে টাকা নেন। আমার দোকানে এসেও তিনি টাকা দাবি করেন।

তাৎক্ষনিক স্থানীয়রা এসে তাদের সাথে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে তাদের ঘুষ চাওয়ার অভিযোগে তাদের আটকে পুলিশে খরব দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য স্যানিটারি ইন্সেপেক্টর এস. এম শহিদুল ইসলাম রন্টু বলেন, ভেজাল খাদ্য নমুনা সংগ্রহ করতে গেলে হোটেল ব্যবসায়ীদের সাথে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। এসময় তারা আমাদের মারপিটের চেষ্টা করে।তাড়াশ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. জামাল মিয়া শোভন বলেন, আটকের বিষয়টি জানতে পেয়ে পুলিশের সহযোগিতায় তাদের উদ্ধার করা হয়। তদন্ত করে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সিরাজগঞ্জ সি সার্জন রামপদ রায় জানান, ঘটনাটি জানতে পেরেছি। আমি বিষয়টি খোজ খবর নিয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © দিগন্তের বার্তা ২৪
Theme Customized BY Theme Park BD