1. admin@digonterbarta24.com : admin :
শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ১১:১৩ অপরাহ্ন

ঢাকা রমনা পার্কে শিশু ফুল বিক্রেতাদের আক্রমণাত্মক হয়রানির শিকার হচ্ছে ঘুরতে আসা কিশোর কিশোরীরা

দিগন্তের বার্তা ২৪ ডেস্ক
  • সময় : শনিবার, ৫ জুন, ২০২১
  • ৬৮ বার পঠিত

বিশেষ প্রতিনিধি।

ঢাকা সু-পরিচিত ও আলোচিত রমনা বটমূল রমনা পার্ক। সেখানে প্রতিবছর জমে উঠে অমর একুশে বই মেলা আর ১৪ই এপ্রিলে পহেলা বৈশাখ পান্তা ভাতের মেলা।

মহা মারি করোনা ভাইরাসে সব কিছুই তছনছ মানব জাতির বিপর্যয় ঘটে। নষ্ট বিনষ্ট হয়ে- ধসে পড়ে যায়, মানুষের আমেজ আনন্দ বিনোদন সব কিছুই। মনে হয় এ যেনো মহান বিধাতার আযাব গজব অভিশপ্ত দিনকাল। তারপরও গরীব মানুষ অসহায় ভিখারি মানুষেরা পেটের ক্ষুধা নিবারনের জন্য কিছু অর্থের জন্য সামান্য কিছু পুঁজি নিয়ে ফুল বিক্রির জন্য এদিক সেদিক ছুটা ছুটি করে রিযিকের তাগিদে ১০টি টাকার জন্য কোনটা ভালো কোনটা মন্দ সেটা ভুলে যায় পেটের ক্ষুধায় ভুলিয়ে দেয় মানবতা আর আত্ত সম্মান বোধ।

বেছে নিতে হয় নানান ধরনের অপরাধ। প্রতিদিন রাস্তায় অলিতে গলিতে আর পার্কে তাদের ফুল হাতে নিয়ে ঘুরা ফেরা করতে দেখা যায়। তারা পাবলিকের কাছে বেশির ভাগ, সময় জোর পূর্বক ফুল বিক্রি করতে দেখা যায়, যারা বুদ্ধিমান তারা তাদের কাছ থেকে এরিয়ে চলে। অনেকে আবার ফুল না কিনে তাদের বকশিশ দিতে দেখা যায়। বিকেল হলেই ঢাকা শহরের নানান জায়গায় থেকে কিশোর কিশোরী প্রেমিক প্রেমিকা, স্বামী স্ত্রীসহ নানান রকমের মানুষের ঢল প্রকৃতির খেয়ালে নিজেকে শীতল হাওয়া তে শান্ত করতে আর চারি দিকের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে দল বেঁধে ছুটে আসে রমনা পার্কে। আবার ছোট বড় সকলে বিশাল মাঠে খেলা ধুলা করতে ছুটে আসে ঢাকা শহরের আশে পাশের বিভিন্ন জায়গায় থেকে দেখতে খুবই ভালোই লাগে। ঢাকায় গেলে দেখা যায়- এইসব মনোরম দৃশ্য, সত্যিখুবই আনন্দময়। আমি প্রাই সময় ঢাকা যাই। ৪ জুন শুক্রবার ঢাকা জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম এ জুম্মার নামাজ আদায়ের পর
রমনার বটমূলে রমনা পার্কের ভিতর দিয়ে যাওয়ার সময় একটি বিশেষ দৃশ্য লক্ষ্য করলাম। দেখলাম ফুল ওয়ালি বিচ্ছুবাহিনী এক সাথে যরো হয়ে কিছু কিশোর কিশোরীদের আক্রমণ করছে তাদের ঝামেলায় ফাসাচ্ছে। আমি তাদের পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলাম, আসলে ঘটনা হচ্ছে তারা বেলি ফুলের মালা বিক্রি করে দাম ১০টাকা ২০টা করে। ছেলে মেয়ে গুলি পার্কে প্রবেশ করার সময় শিশু ফুল বিক্রেতারা তাদের ফুল কিনতে বলে। তারা ফুল কিনবে না ভালো কথা তবে বরকা পরা মেয়েটি তাদের ফুল ছুরে ফেলে দেয় বাছ শুরু হয়ে যায় লংকা কান্ড মহা তান্ডব। দুই জনের সাথে ফুল মাটিতে ফেলার অপরাধে তাদের মাশুল গুনতে হয় একে একে তাদের গ্রুপের সবাই কে টাকা দিতে হয়। তারপরও তাদের পিছু ছাড়েনা বিচ্ছুবাহিনীরা তাদের ঝামেলায় ফাঁসানোর চেষ্টা করে আমি ঘটনা স্থলে উপস্থিত থাকি। আশে পাশে তাকিয়ে দেখি কেউ আসেনা, আমি অবস্থা জটিল দেখে এগিয়ে যাই। আর বিচ্ছুবাহিনীদের বলি সব গুলাকে একসাথে বেঁধে রোহীঙ্গা ভাসান চরে পাঠাবো মানুষের কাছ থেকে এইভাবে টাকা নিতে নেই। আর তাদের বললাম তোমরা দুই জনকে টাকা না দিয়ে সবাই কে টাকা দিতে গেলা কেনো এই ধরনের ভুল আর কখনো করবেনা। তারা ফুল বিক্রেতা- ফুল বিক্রি করে তাদের সংসার চালায় তাদের সাথে ভালো ব্যবহার করবে তারাও তো মানুষ তারপর নিজে উপস্থিত থেকে তাদের ঝামেলা মিট করে দেই। তারা যের যার বায়ে চলে যায়, আশে পাশের অনেকেই বলে ভাই এগিয়ে না যাইলে তারা বিপদে পড়ে যেতো ভাই আপনার পরিচয়, আমি সাংবাদিক,
বাবরে বাপ বিচ্ছুবাহিনীর কান্ড দেখে আমি হত বঙ্গ হয়ে যায় খুব মজা পাই আবার অনেক রাগও উঠে।
বিভিন্ন পার্কে চলার পথে সাবধানতা অবশ্যই জরুরি।
(৪-জুন ২০২১ইং শুক্রবার এর ঘটনা)

ফটো ধারণ বিবিসি নিউজ ২৪ সাংবাদিক সাহাদাৎ হোসেন শাহীন বিশেষ প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © দিগন্তের বার্তা ২৪
Theme Customized BY Theme Park BD