1. admin@digonterbarta24.com : admin :
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৬:১২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
‘আশরাফি তাবাসসুম ঐশী’র উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার গল্প! বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন নির্বাচনে যারা বিজয়ী কক্সবাজারে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট’র সম্প্রীতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত ইংল্যান্ডের কাছে পাত্তাই পেল না ওয়েস্ট ইন্ডিজ পটুয়াখালীতে নৌকার মনোনয়ন পেলো রাজাকার পুত্র ও সাবেক বিএনপি নেতা গোলসাছড়ি জনবল বৌদ্ধ বিহারে ১ম বারের মত দানোত্তম কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠিত বড়লেখায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযানে ৩টি প্রতিষ্টানকে জরিমানা কমলগঞ্জের সড়ক পাকা কনণের দাবিতে গ্রামবাসীর মানববন্দন হাজরাবাড়ি পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত খাগড়াছড়ির বীর মুক্তিযোদ্ধা মনু মিয়া’র রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন

দক্ষিণবঙ্গের সর্বোবৃহৎ বাজার ২০ বছর ইজারাবহির্ভূত,সরকার হারাচ্ছে বছরে কোটি টাকা রাজস্ব

দিগন্তের বার্তা ২৪ ডেস্ক
  • সময় : বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১
  • ৮৩ বার পঠিত

যশোর প্রতিনিধিঃ যশোর শার্শা উপজেলার বাগুড়ী (বেলতলা বাজার) দক্ষিণবঙ্গের সর্বোবৃহৎ পাইকারি ফলের বাজার। স্থানীয় আম বরই লিচু পেয়ারা সহ নানান ফল চাষী, শতাধিক আড়ৎদার এবং ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত পাইকারী ক্রেতার সমন্বয়ে দীর্ঘদিনে ধীরে ধীরে গড়ে ওঠা এই বাজারের পরিচিতি এবং সুনাম আজ ছড়িয়ে পড়েছে সারাদেশে। যশোর ও সাতক্ষীরা এই দুই জেলার ফল চাষীরা এ বাজারে ফল বিক্রি করেন। বরই এর মৌসুমে তিন মাস ধরে এবং আমের মৌসুমে আড়াই মাস ধরে এই বাজারে বেচাকেনা চলে। আমের ভরা মৌসুমে এই বাজার হতে প্রতিদিন প্রায় ৫০ ট্রাক করে আম চলে যায় ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন জেলায়।

এই বাজারে প্রায় দুইশত বিভিন্ন ধরণের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আছে। বৃহত্তম এই ফলের বাজারটি ২০ বছরের বেশি সময় ধরে সরকারী ইজারা বহির্ভূত। ফলে এখান থেকে প্রতিবছর সরকার বিপুল অঙ্কের রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বর্তমানে ফলের বাজারটি প্রায় কোটি টাকায় ইজারা হবে বলেও মত প্রকাশ করেছেন স্থানীয় অনেকে। স্থানীয় সিন্ডিকেট কর্তৃক এই বাজার থেকে বিভিন্নভাবে চাঁদাবাজি হয় বিপুল পরিমাণ অর্থ, ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বাজার সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী ও ফল চাষীরা। এবং বাজার সংশ্লিষ্ট সবাই থাকেন ভীষণ আতঙ্কে ও নিরাপত্তাহীনতায়। এই বাজারের চাঁদাবাজি নিয়ে বড়ধরণের সংঘাত ও হতাহতের আশঙ্কাও কম নয়।

এবিষয়ে শার্শা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা বলেন, এব্যাপারে এসিল্যান্ডকে তদন্ত করে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

অবিলম্বে দক্ষিণবঙ্গের সর্বোবৃহৎ এই ফলের বাজারটি সংশ্লিষ্ট সরকারী দপ্তর কর্তৃক ইজারার মাধ্যমে রাজস্ব আদায় করে দেশের সার্বিক উন্নয়নকে তরান্বিত এবং সন্ত্রাসী-চাঁদাবাজদের প্রতিহত করার দাবী জানিয়েছেন স্থানীয় সর্বস্তরের শান্তিকামী জনসাধারণ, ব্যবসায়ী ও ফল চাষীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © দিগন্তের বার্তা ২৪
Theme Customized BY Theme Park BD